উদীয়মান এক তারকার নাম “রাইয়ান রশিদ”

0
2322

বার্তা প্রবাহ রিপোর্ট : বাংলাদেশে যখনই উদীয়মান তারকার কথা আসে, তখন সর্বপ্রথম যার নাম আসে, তিনি হলেন “রাইয়ান রশিদ”! একজন ১৯-২২ বছরের ছেলের সাধারনত ক্লাস, এসাইনমেন্ট জব ইত্যাদি নিয়েই সময় পার হয়ে যায়! কিন্তু রাইয়ান রশিদ একদমই তার ব্যতিক্রম ! অনেক অল্প বয়সেই নিজেকে বক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার এক আপ্রাণ চেস্টা তার! অনেক অল্প বয়সেই শুরু করেন কর্রপরেট হোস্টিং, কাজ করেছেন একাধিক বেসরকারি রেডিওতেও! একইসাথে তিনি অভিনয়, ওভিছি /টিভিসিও করে যাচ্ছেন ! এছড়াও তিনি “যুব সংসদের” একজন সদস্যও ! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার রয়েছে মোট ৪০ হাজারেরও বেশি ফলোয়ার ! এখন পর্যন্ত দেশে-বিদেশে সব মিলিয়ে ৯০+লাইভ হোস্টিং করেছেন! এবং অনলাইনে তো আছেই !

তার ছেলেবেলা নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন “আমি জন্ম নেই ঢাকার বারডেম হাসপাতালে ! পরিবারের বড় ছেলে তাই সবাই অনেক এক্সেপেক্টেশন রাখতেন! আমার বাবা একজন “ইন্জিনিয়ার” এবং তার “মেডিকো ইন্টারন্যাশনাল” নামে একটি কম্পানিও আছে! ছোটবেলায় যখনই আমি অভিনয় করার কথা কিংবা মিডিয়ায় কাজ করার কথা পরিবারের কাছে বলতাম! তখনই পরিবারের থেকে নিরুৎসাহিত হতাম! তবে নিজের ভেতরে একটা জেদ কাজ করতো, যে প্রফেশনেই যাই না কেন মিডিয়কে পাশে রাখবো! এভাবেই গুটি গুটি পায়ে স্কুল কলেজে হোস্টিং এবং পরে কর্পরেট হোস্টিং করা আরাম্ভ করি সাথে ছিল অভিনয় ও টুকটাক আনুসাঙ্গিক কাজ! পরিবার বলতে মায়ের কিছুটা সাপোর্ট ছিল পাশে তাই অভিনয়েও সাহস পাই ! এখনও শেখার চেস্টা করছি সবকিছু! “

তার কাছে তার পড়াশোনা নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন “ এ ব্যপার টা আপাতোত একটু আড়ালে রাখতে চাই তবে ভবিষ্যতে একজন বে-সামরিক পাইলট হওয়ার প্রস্তুতি চলছে! আশাকরি ২-৩ বছরে হয়েও যাবো!
বার্তা প্রবাহ: পাইলট হওয়ার পর কিভাবে মিডিয়াকে সময় দিবেন?
রাইয়ান: আসলে সময় আমাকে কোথায় নিয়ে যাবে জানি না তবে যেখানেই যাবো মিডিয়া থাকবেই ! হয়তো মূল পেশা হিসেবে বিমান চালানোকে রাখবো, আর বাকি সময়টা মিডিয়া কে দিবো!

বার্তা প্রবাহ: আপনার জীবনে সবচেয়ে বড় এচিভমেন্ট কোনটি?
রাইয়ান: সত্যি বলতে কিছু মানুষ ছিলেন যারা ভেবেছিলেন তাদের জন্য মৃত্যু ছাড়া কোনো উপায় নেই! আমার সঙ্গ পেয়ে তারা এ চিন্তা থেকে ফিরে আসেন! এবং এখন তারা অনেকেই সফল! যখন সে মানুষগুলো বলেন যে তাদের আজকের অবস্থানের জন্য আমিই দায়ী, তখন নিজেকে একটু সফল মনে হয়!

বার্তা প্রবাহ: আপনার প্রিয় আভিনেতা কে?
রাই্য়ান: জিয়াউল ফারুখ অপূর্ব ভাইয়া!

বার্তা প্রবাহ: আপনার প্রিয় গায়ক কে?
রাইয়ান: সত্যি বলতে অনেকে আছেন তালিকায় তবে সবচেয়ে বেশি ashesh ব্যান্ডের জুনায়েদ ইভান ভাই !

বার্তা প্রবাহ: পুরোপুরি ভাবে আপনাকে অভিনয়ে কবে দেখতে পাবো?
রাইয়ান : এটা আমি নিজেও জানি না ! তবে যেদিন ডিরেক্টর কাজ দিবেন সেদিন হয়তো!

বার্তা প্রবাহ: পরিবারে কার সাথে বেশি ক্লোজ আপনি?
রাইয়ান: আমার পরিবার বলতে আমি আর আমার ছোট ভাই এবং মা বাবাই আছেন! তবে আমি আম্মুর সাথে একটু ক্লোজ!

বার্তা প্রবাহ: আপনার নেক্সট প্রজেক্ট নিয়ে জানতে চাই !
রাইয়ান: আপাতোত এই মাসে আই স্টার এওয়ার্ডের জন্য নমিনেটেড! তাই এটাই নেক্সট প্রজেক্ট !

বার্তা প্রবাহ: আপনার কাজগুলোর জন্য বন্ধুমহলের রিয়্যকশন কেমন?
রাইয়ান: আমার হাতেগোনা কয়েকজন বন্ধু আছে! ওদের কাছে ঐ আগের রাইয়ানই আছি!কোন পরিবর্তন নেই!

বার্তা প্রবাহ: এতকিছুর পরও অন্য কোনো প্রফেশনে যাওয়ার ইচ্ছা আছে?
রাইয়ান: সত্যি বলতে হ্যা! ইচ্ছে আছে ব্যবসা করার! তবে জানি না তা সম্ভব হবে কিনা !

বার্তা প্রবাহ: অবসর সময়ে কি করে থাকেন?
রাইয়ান: সত্যি বলতে ফ্রি টাইমে কোন নির্দিষ্ট কাজ করি না! যখন দরকার হয়,
তখন দূরে গিয়ে নিজেকে সময় দেই, আবার গান লেখি ইত্যাদি!

বার্তা প্রবাহ: আপনার আইডল কে ?
রাইয়ান: হযরত মুহাম্মদ (সা)!

বার্তা প্রবাহ: বাংলাদেশী কোন অভিনেত্রীকে বেশি ভালোলাগে ?
রাইয়ান: এক্ষেত্রেও অনেকে, তবে সাফা আপুকে আমার অনেক বেশি ভালোলাগে! আর অভিনেত্রী হিসেবে অবশ্যই “মেহেজাবিন”

বার্তা প্রবাহ: আপনার কেমন ধরনের যায়গা বেশি প্রিয়? বা প্রিয় স্থান কোনটি?
রাইয়ান: আমি একটু একাকী থাকতে পছন্দ করি, যেখানে শুধু আমি গাছপালা, ঘাসই থাকবে এমন স্থান! তবে সবচেয়ে বেশি প্রিয় এয়ারপোর্টের রানওয়ে! এটার আশেপাশে থাকলে আমার মন ভালো হয়ে যায়!

রিপোর্টার: আপনার পরিবার কি এখন সাপোর্ট করে আপনার কাজ গুলো?
রাইয়ান: সত্যি বলতে কিছুটা! আমার মায়ের স্বপ্ন ছিল আমাকে বিমান বাহিনী তে যোগদান করানোর! পরে আমার ইচ্ছায় তিনি বাঁধা দেন নি!
তাই পড়াশোনার সাথে টুকটাক কাজ করছি!

বার্তা প্রবাহ: একটু ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে জানতে চাই! এ পর্যন্ত কতগুলো প্রেমের প্রস্তাব পেয়েছেন?
রাইয়ান: (একটু মুচকি হেসে)
আসলে এরকমটা হয় তবে আমি গুনি নি ! তবে প্রায়ই প্রোগ্রাম শেষে কিছু মেয়ে ফুল দিয়ে থাকেন ! আমি সেটাকে কম্প্লিমেন্ট হিসেবে নিয়ে থাকি!

বার্তা প্রবাহ: আপনার বক্তা হওয়ার পেছনে অনুপ্রেরনা কে?
রাইয়ান: সত্যি বলতে সেভাবে কেউ না! তবে এই ব্যপারে আমার মা বেশ সাপোর্ট করেছেন!

বার্তা প্রবাহ: সামনে কি নতুন কোন চমক আসছে?
রাইয়ান: হ্যা! এবারে একটু ইউটিউব্ং করতে চাই! এই কাজটা আগেও করেছিলাম তবে সফল হতে পারিনি! কারন একটা দল নিয়ে শুরু করেছিলাম! মাঝে দলটা ভেঙে যায়! দেখা যাক এখন কি হয়!

বার্তা প্রবাহ: এবারে কেমন ধরনের কন্টেন্ট পাওয়া যাবে আপনার চ্যনেলে?
রাইয়ান: এবারে আমি মূলত ডেইলি ভ্লগ আপলোড দিবো! তাছাড়াও টুকটাক হিপহপ নিয়ে কাজ করবো!

বার্তা প্রবাহ: আপনার জন্য অনেক শুভকামনা রইলো!
রাইয়ান: ধন্যবাদ!