হিজড়া সম্প্রদায়ের আত্মপ্রকাশ নিয়ে কিছুকথা

0
150

সৈয়দা শাহানাজ পারভীন

হিজরা শব্দটি এসেছে আরবী হিজরত বা হিজরী শব্দ থেকে। এর আবিধানিক অর্থ পরিবর্তন বা Migrate বা Transfer এর ধারাবাহিকতায় আমাদের  দেশে বিভিন্ন ধরনের শারিরীক লিঙ্গের ত্রুটির কারনে এদের সৃষ্টি। দক্ষিন এশিয়ার রূপান্তরিত নারীদেরকে বোঝানো যেতে পারে।

  * হিজরা দক্ষিন এশিয়ার রূপান্তরিত লিঙ্গেঁর নারীগন।

 * অন্তলিঙ্গঁ জন্মগত ভাবে দৈহিক বা জিনগত পুরুষ ও নারীর মধ্যবর্তী কোন অবস্থানের ব্যক্তিবর্গ।

 * তৃতীয় লিঙ্গঁ নারী ও পুরুষ ব্যতিরেকে সকল লিঙ্গেঁর পৃথক একক শ্রেণী বিভাগ।

 * রূপান্তরিত লিঙ্গঁ: যে সকল ব্যক্তি বর্গ যাদের যৌন পরিচয় বা যৌন অভিব্যক্তি এদের জন্মগত যৌনতা হতে আলাদা।

 * খোজা শুক্রাশয় অপসারনকৃত নপুংসক পুরুষ।

নারী ও নয় আবার পুরুষ ও নয় এ ধরনের একটি শ্রেণীকে আমরা প্রায় রাস্তা ঘাটে কিংবা দোকান পাটে বিভিন্ন রকম অঙ্গঁভঙ্গি করে চাঁদা তুলতে দেখি। আমরা যারা সভ্য সমাজের মানুষ তারা এই অবহেলিত শ্রেণীকে হিজড়া বলে ডাকি। তবে হিজরাদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, হিজড়া শব্দকে তারা অভিশাপ বা গালি হিসেবে মনে করেন। আসলে তারা হচ্ছেন ট্রানভেন্ডোর। প্রকৃতির নিয়তিতেই এরা স্বাভাবিক মানুষের পরিবর্তে হিজড়ায় রূপান্তরিত হয়। সভ্য সমাজ থেকে এক প্রকার নির্বাসিত এই শ্রেণীটি তাই বিকৃত মানসিকতা নিয়ে গড়ে ওঠে। পেটের তাগিদে জড়িয়ে পড়ে নানা রকম অপরাধমূলক কার্যক্রমে। অথচ মানুষ হিসাবে স্বীকৃতি দিয়ে এসব হিজড়াদের সামাজিক অধিকারগুলো নিশ্চিত করতে পারলে তারাও সমাজে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখতে পারে।

বাংলাদেশে প্রায় ১০ হাজার হিজড়া আছে। কম সংখ্যক হিজড়া হলেও এ সম্প্রদায় আবহমান কাল থেকেই বাংলাদেশে বিদ্যমান আছে। যদিও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক গৃহীত কিছু পদক্ষেপ ইতিমধ্যে সরকার নিয়েছে যার ধারাবাহিকতায় হিজড়াদের সন্তান রা শিক্ষার ক্ষেত্রে বাতা ও বৃত্তি পাচ্ছেন যদিও তার পরিমান খুবই কম। ৫০ বছরে উর্ধে হিজড়া ব্যাক্তিরা মাসিক ৪০০ টাকা করে বিশেষ ভাতা পান। সুতরাং এদের ক্ষেত্রে আরও কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করলে যারা রাস্তাঘাটে দোকানে চাঁদা তুলে বা টাকার জন্য পথচারীকে বিরক্ত করে তাদের শ্রেণীর জন্য কিছু কিছু আয় মূলক কার্যক্রমের ব্যবস্থা করে তার আওতাভূক্ত করলে এ ধরনের কাজ থেকেে তারা বিরত থাকতে পারবে এবং অপরাধ মূলক কাজের সাথে জড়াবে না। এবং মানুষ হিসাবে সে স্বীকৃতি পেয়ে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস পাবে সে সেও মানুষ এ সমাজে অন্য সকল মানুষের মত তার ও অবদান থাকবে। অন্যদিকে হিজড়া সম্প্রদায়ের কিছু হিজড়া বিভিন্ন অপরাধ মূলক কাজে জড়িত থাকে। নানা প্রলবন ১২-১৩ বছরের মেয়েদের নিয়ে ডাক্তারের মাধ্যমে অঙ্গ পরিবর্তন করে এরকম কথাও সংবাদে পাওয়া যায় সে বিষয়েও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর খবরের সত্তত্যা যাচাই করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার।