সেরা দশ প্রতিষ্ঠানকে এনবিআরের সম্মাননা

0
45

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অনুষ্ঠিত মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় অংশগ্রহণকারী সেরা দশ প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।
মঙ্গলবার এনবিআরের প্রধান কার্যালয়ে সংস্থাটির চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এই পুরস্কার দেন।
সম্মাননা পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পক্ষে পুরস্কার নিতে আসা ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক হুমায়ুন কবির বলেন, ‘পুরস্কার হচ্ছে স্বীকৃতি। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ভ্যাট প্রদানে ওয়ালটন গত ১২ বছর ধরে প্রথম স্থান অধিকার করে আসছে। এ বছর দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে। যাই হোক আমরা সঠিক ট্রাকেই আছি। ভ্যাট প্রদানে আমরা নিয়মিত পুরস্কার পেয়ে থাকি।’
হুমায়ুন কবির বলেন, ‘আমি এনবিআর চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করবো ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ইপিবি যেভাবে ক্যাটাগরি অনুসারে পুরস্কার দেয়, তাহলে ভ্যাট প্রদানে এক ধরনের প্রতিযোগিতা তৈরি হবে। সবার মধ্যে ভ্যাট প্রদানে উৎসাহ যোগাবে কারণ সরকার আমাদের পুরস্কার দিচ্ছে।’
আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় পৃথক একটি দিন উদযাপনের আহ্বান জানিয়ে হুমায়ুন কবির বলেন, ‘ভ্যাট দিবস বা আয়কর দিবসের মতো আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় পৃথক একটি দিন আলাদাভাবে উদযাপন করা যেতে পারে। সেখানে আমাদের রাখতে পারেন। ৩১ দিনের মেলায় একটি বিশেষ দিন হলে মানুষের মধ্যে ভ্যাট প্রদানের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে এক ধরণের সেতুবন্ধন তৈরি হবে।’
ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক বলেন, বাণিজ্য মেলা আরও বড় পরিসরে করা দরকার। কারণ এখন মেলার প্যাভিলিয়নগুলো ছোট পরিসরে আয়োজন করে। বর্তমানে বাণিজ্য মেলায় ৩০ একরের পরিবর্তে আরও বড় পরিসরে ৬০ একরে করা যেতে পারে। এটা হলে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আরো ফলপ্রসু হবে।
সম্মাননা পাওয়া ১০টি প্রতিষ্ঠানের তালিকা ও ভ্যাট আদায়ের পরিমাণ
হাতিল কমপ্লেক্স লিমিটেড- ৯৯.৪৪ লাখ, ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড- ৪২.১২ লাখ, এসকোয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড- ৩৪.৯০ লাখ, র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড-২৭.৪২ লাখ, বাটারফ্লাই মার্কেটিং লিমিটেড-২৩.১০ লাখ, আরএফএল ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড-২১.৫৯ লাখ, ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড-১৮.৮৫ লাখ, ডিউরেবল প্লাস্টিক লিমিটেড- ১৭.২১ লাখ, নাভানা ফার্নিচার লিমিটেড-১৬.৫২ লাখ ও রংপুর মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-১৫.৮৬ লাখ টাকা।
অনুষ্ঠানে হাতিল কমপ্লেক্স লিমিটেডের পক্ষে মশিউর রহমান, এসক্যোয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে আবু বকর, র‌্যাংগস ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে মাসুদ হোসেন মানিক, বাটারফ্লাই মার্কেটিং লিমিটেডের পক্ষে শাহজাহান মজুমদার, আরএফএল ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড, ডিউরেবল প্লাস্টিক লিমিটেড, রংপুর মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পক্ষে চৌধুরী আতিউল রাসুল, ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে কাজী নাসির ও নাভানা ফার্নিচার লিমেটেডের পক্ষে ইয়ামিন রিকু পুরস্কার গ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা থেকে রেকর্ড ৭ কোটি ১ লাখ টাকা মূল্য সংযোজন কর (মূসক/ভ্যাট) আদায় হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ কোটি টাকা বেশি। ২০১৮ সালে বাণিজ্য মেলা থেকে আদায় করা ভ্যাটের পরিমাণ ছিল ৫ কোটি টাকা।