লকডাউন কার্যকর করতে রেড জোনে নামছে সেনাবাহিনী

0
127

অনলাইন ডেস্ক : দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত রেড জোনগুলোতে লকডাউন কার্যকরে বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে সেনাবাহিনী নামছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু এলাকায় সেনা সদস্যরা পৌঁছে গেছেন।

আজ মঙ্গলবার আন্তঃবিভাগ জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ ইবনে জায়েদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আব্দুল্লাহ ইবনে জায়েদ বলেন, কিছু কিছু জায়গায় সেনা সদস্যরা চলে গেছেন। এছাড়া অন্য জোনগুলোতে যাওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে আজ সকালে এক ক্ষুদে বার্তায় আইএসপিআর জানায়, রেড জোনগুলোতে সরকারি নির্দেশাবলি যথাযথ পালনের উদ্দেশ্যে সেনা টহল জোরদার করা হচ্ছে।

জানা গেছে, রেড জোনে লকডাউন এলাকার লোকদের বাইরে বের হওয়ার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি বাইরে থেকেও রেড জোনে লোক প্রবেশ বন্ধ থাকবে।

দেশে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সংক্রমণের মাত্রার ওপর ভিত্তি করে রাজধানীসহ সারাদেশকে রেড, ইয়েলো ও গ্রিন জোনে ভাগ করেছে সরকার। ৭ জুন প্রথম রাজধানীর রাজাবাজার এলাকা লকডাউন করা হয়।

কিছুটা সফলতা আসায় রাজধানী ঢাকা্র দুই সিটি করপোরেশনের আরো ৪৫টি এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব এলাকায় লকডাউন কার্যকর করতে গতকাল থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম চলছে।

এর বাইরে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের এবং গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদীর বিভিন্ন জায়গা রেডজোনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গত ১ জুন ভাইরাসটি প্রতিরোধে রাজধানী ঢাকাসহ পুরো দেশকে তিন জোনে ভাগ করার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। লকডাউন বাস্তবায়ন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনী মাঠে কাজ করবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।

এছাড়া গ্রিন জোনে সতর্কতা এবং ইয়েলো জোনে সংক্রমণ যেন আর না বাড়ে সেজন্য বিশেষ গাইডলাইন করা হয়েছে।

ঢাকা উত্তর সিটিতে যেসব এলাকা রেড জোনের আওতায়: বসুন্ধরা, বাড্ডা, ক্যান্টনমেন্ট, মহাখালী, তেজগাঁও, রামপুরা, আফতাবনগর, মোহাম্মদপুর, কল্যাণপুর, গুলশান, মগবাজার, এয়ারপোর্ট, বনশ্রী, রায়েরবাজার, রাজাবাজার, উত্তরা ও মিরপুর।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে যাত্রাবাড়ি, ডেমরা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, জিগাতলা, লালবাগ, আজিমপুর, বাসাবো, শান্তিনগর, পল্টন, কলাবাগান, রমনা, সূত্রাপুর, মালিবাগ, কোতয়ালি, শাজাহানপুর, মতিঝিল, ওয়ারি, খিলগাঁও, পরিবাগ, শাহবাগ, ইস্কাটন, কদমতলী, সিদ্ধেশরী, লক্ষীবাজার, এলিফ্যান্ট রোড, সেগুনবাগিচা রেড জোনের আওতায় ।

চট্টগ্রাম সিটিতে রেড জোনের আওতায় রয়েছে চট্টগ্রাম বন্দরে ৩৭ ও ৩৮ নম্বর ওয়ার্ড, পতেঙ্গার ৩৯ নম্বর ওয়ার্ড, পাহাড়তলির ১০ নম্বর ওয়ার্ড, কোতোয়ালির ১৬, ২০, ২১ ও ২২ নম্বর ওয়ার্ড, খুলশীর ১৪ নম্বর ওয়ার্ড, হালিশহর এলাকার ২৬ নম্বর ওয়ার্ড।

এ ছাড়া আরও তিন জেলা রেড জোনের আওতায়। এর মধ্যে গাজীপুরের সব কটি উপজেলা, নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার, রূপগঞ্জ, সদর এবং পুরো সিটি এলাকা, আর নরসিংদীর সদর মডেল থানা, মাধবদী ও পলাশ উপজেলা রয়েছে।