বৈষম্য নিরসনে অবাধ বাণিজ্য নীতি চাই: স্পিকার

0
42

অনলাইন ডেস্ক : স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বিশ্বে ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য অবাধ বাণিজ্য নীতি জরুরি। বিশ্ব বাণিজ্যে বিরাজমান বৈষম্য নিরসনে অন্তর্ভূক্তিমূলক অবাধ বাণিজ্য নীতি প্রণয়ন করতে হবে। কারণ অবাধ বাণিজ্যের মাধ্যমে স্বল্পোন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলো উপকৃত হয়। পরিবর্তনের সুবিধা দরিদ্র জনগোষ্ঠী ভোগ করতে পারে। আমারা দেখেছি, সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) অর্জনেও বাণিজ্য ও বিনিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।
সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় চলমান ইন্টার পার্লামেন্টারী ইউনিয়নের (আইপিইউ) ১৩৯তম অ্যাসেম্বলি’র স্টান্ডিং কমিটির সভায় আজ তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় সংসদের গণসংযোগ বিভাগ এ তথ্য জানায়।
‘অন-সাসটেইনেবল ডেভলপমেন্ট, ফিন্যান্স এন্ড ট্রেড’ শীর্ষক ডিবেটে অংশ নিয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন আরো বলেন, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অর্জনে বাণিজ্যের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। তাই দারিদ্র, প্রান্তিক ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে প্রাধাণ্য দিয়ে বাণিজ্য নীতি তৈরি করতে হবে, যাতে ন্যায্য মজুরি ও কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়। কারণ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জন একটি বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ। আর এ ক্ষেত্রে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ অত্যাবশ্যকীয় উপাদান।
বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আইপিইউ স্টান্ডিং কমিটি ব্যুরো’র সদস্য মিজ সিলভিয়া ডিনিকা। বৈঠকে অন্যান্য দেশের প্রতিনিধিদের সাথে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, মো. আব্দুল কুদ্দুস, এ বি তাজুল ইসলাম, মমতাজ বেগম, কে.এইচ আজিজুল হক, আশেক উল্লাহ রফিক, মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম চৌধুরী ও শামীম হায়দার পাটোয়ারী উপস্থিত ছিলেন।