পশ্চিম আফ্রিকার মালিতে বিস্ফোরন; চির অবসরে পিরোজপুরের আজাদ

0
114

এস সমদ্দার, পিরোজপুর ব্যুরো : বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত আনুমানিক সাড়ে আটটায় পশ্চিম আফ্রিকার মালির দোয়েঞ্জা নামক স্থাকে এক ভয়াবহ বিস্ফোরনে যে চার বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী মারা গেছে তার মধ্যে ওয়ারেন্ট অফিসার আবুল কালাম আজাদ পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার কলারদোয়ানি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের উত্তর কলারদোয়ানি গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মরহুম মকবুল হোসেনের ছেলে। নিহত আজাদের স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। স্ত্রী খাদিজা বেগম স্থানীয় মুগাঝোর বালিকা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক এবং দুই সন্তানের মধ্যে বড় মেয়ে আশলিকা আজাদ ইমু ১০ম শ্রেণিতে ও ছোট সন্তান ছেলে ফারদিন স্থানীয় একটি স্কুলে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। ১৯৯২সালের সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদানের পর ২০১৭সালের ২০মে জাকিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে অংশ নিয়ে মালিতে যান। আগামী তিন মাসের মধ্যে শান্তিরক্ষী মিশন থেকে ফিরে এসে চাকরি থেকে অবশরে যাওয়ার কথা ছিল আজাদের। মৃত মকবুল দম্পতির চার সন্তানের মধ্যে তিন মেয়ে ও ছোট ছেলে হলো আজাদ !
আজাদের এক বোন শারিরীক প্রতিবন্ধী সে আজাদের সাথেই থাকে। এখন আজাদের দুই সন্তান ও শারিরীক প্রতিবন্ধী বোনের দ্বায়িত্ব সরকারকে নেয়ার দাবি নিহতের স্বজনদের। এবং তার লাশ বাংলাদেশে এনে রাস্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফনের দাবি স্বজনদের।
এদিকে আজাদের মৃত্যুর খবর তার স্ত্রী সন্তানদের জানানো হয়নি বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। কারন নির্মম এ শোকের ভার বহন করতে পারবেনা পরিবার। তাদের জানোনো হয়েছে যে আজাদ অসুস্থ্য। সুস্থ্য হলেই খুব শীগ্রই দেশে ফিরে আসবে।