দেশে ৪ বছরে ১৭ হাজার ২৮৯ নারী ও শিশুকে ধর্ষণ

0
69

অনলাইন ডেস্ক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন, ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে নারী ও শিশু ধর্ষণ সংক্রান্ত ১৭ হাজার ২৮৯টি মামলা দায়ের হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরির সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে রবিবার টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান।
আবুল কালাম আজাদের (জামালপুর-১) লিখিত প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, এসব মামলায় ভিকটিমের সংখ্যা ১৭ হাজার ৩৮৯ জন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৮৬১ জন নারী ও তিন হাজার ৫২৮জন শিশু। এই চার বছরে তিন হাজার ৪৩০টি ধর্ষণ মামলার বিচার শেষ হওয়ার তথ্য দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিষ্পত্তি হওয়া মামলাগুলোতে ১৭ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ৮০ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫৭৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজাসহ মোট ৬৭৩ জনকে শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে।
এদিকে, সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন জানান, চোরাই মালামাল ক্রয় বিক্রয়ের স্থান সনাক্ত করাসহ ছিনতাইকারী আটকের জন্য গোয়েন্দা নিয়োজিত করা হয়েছে। ডিএমপি এলাকায় ছিনতাইকারীদের তালিকা প্রস্তুতপূর্বক বিশেষ গুপ্তচর নিয়োগের মাধ্যমে তাদের গ্রেফতারপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এছাড়া ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় ছিনতাই প্রতিরোধে ও জনসাধারণের নিরবিচ্ছিন্ন চলাচল নিশ্চিত করতে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
নিজাম উদ্দিন হাজারীর (ফেনী-২ ) প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সত্যিকার পরিচয় ছাড়া পুলিশ ও র‌্যাবের পোশাক, হ্যান্ডকাফ, বেল্ট ও জুতা অবাধে বিক্রি বন্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। পুলিশ ও অন্য বাহিনীর ব্যবহৃত পোশাক সামগ্রী, ব্যাজ, হ্যান্ডকাপসহ বিভিন্ন সামগ্রীর অপব্যবহার রোধে পরিবীক্ষণের জন্য বিভিন্ন কমিটি গঠন করা হয়েছে।