ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নিয়ে আসছে ডাক বিভাগ

0
40

অনলাইন ডেস্ক : শিগরিই চালু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস “নগদ”। অধিকতর নিয়ন্ত্রণ এবং শৃঙ্খলা বজায় রেখে মানুষকে আরো বেশি লেনদেনের স্বাধীনতা প্রদানের লক্ষ্য নিয়ে শুরু হতে যাওয়া এই সেবাটি বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস।
“নগদ” শীর্ষক এই সেবাটি পরিচালিত হবে ডাক বিভাগের জন্য বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রণীত “বাংলাদেশ পোস্টাল এক্ট এমেন্ডমেন্ট ২০১০” এর ৩ এর ২এফ ধারার সুদৃঢ় এবং সুস্পষ্ট আইন অনুযায়ী।
২০১০ সালে শুরু হওয়া বাংলাদেশ ডাক বিভাগের পোস্টাল ক্যাশ কার্ড সার্ভিস ছিল বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস। প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ ভিশনকে সামনে রেখে যাত্রা শুরু হয়েছিল ডাক বিভাগের এই সেবাটি। ডাক বিভাগের দেশব্যাপী অবকাঠামো এবং আর্থিক সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে প্রায় এক শতাব্দীরও অধিক অভিজ্ঞতা এই ক্ষেত্রে মূল অনুঘটক হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল।
এই সেবার অধীনে গ্রাহকদের অধিকতর লিমিট দেয়ার প্রসঙ্গে ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল বলেন ‘সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আর্থিক লেনদেন ব্যবস্থাপনায় ডাক বিভাগের রয়েছে একশো বছরের ও বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা। দেশব্যাপী ৯৮৮৬ টি পোস্ট অফিস এবং কর্মচারীদের তত্ত্বাবধানে ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল খাতে যে কোন অনিয়ম দ্রুত এবং দক্ষতার সাথে মোকাবেলা করার সামর্থ্য রাখে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ অত্যন্ত সফলতার সাথে ওর্য়াল্ড ব্যাঙ্ক, রেড ক্রস, ইউএনডিপি, এটুআই ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রামের মতো প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন প্রজেক্টের আওতায় প্রান্তিক পর্যায়ে আর্থিক লেনদেন বহু বছর ধরে সফলতার সাথে করে আসছে। আর এই বিশেষ সেবাটির যথাযথ পরিচালনায় সরকারি দিক নির্দেশনা তো থাকছেই। অতএব এর সাথে অন্য কোন নিয়ন্ত্রক ব্যবস্থার অধিক্রমন হওয়ার কোন সুযোগ নেই।’
এছাড়াও সেবাটিকে আরো অভিনবত্বের মাধ্যমে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষে সকল নিয়ম মেনে মাস্টার এজেন্ট হিসেবে থার্ড ওয়েভ টেকনোলজিস লিমিটেড নিয়োগ দেয়া হয়েছে যাদের রয়েছে এই খাতের পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পন্ন দক্ষ জনবল।
উল্লেখ, বাংলাদেশের দুই তৃতীয়াংশ মানুষ এখনো যথাযথ কোন প্রকার আর্থিক সেবার আওতার বাইরে। প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষকে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির আওতায় আনার ক্ষেত্রে এবং এই খাতের সার্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে এই সেবাটি কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবে বলে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ডাক বিভাগ।