ঝালকাঠিতে আসামির গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

0
47

অনলাইন ডেস্ক: ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় গণধর্ষণ মামলার আসামি সজল জোমাদ্দার নামে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ শনিবার দুপুরে উপজেলার বিনাপানি গ্রামের একটি মাঠ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সজল পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামের আবুল হোসেন জোমাদ্দারের ছেলে। তিনি ভান্ডারিয়া থানার একটি গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি।

কাঁঠালিয়া থানার ওসি এনামুল হক জানান, দুপুরে বিনাপানি গ্রামের একটি বাগানের পাশের মাঠে সজলের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে কাঁঠালিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাথার দুই পাশে দুটি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে। নিহতের বুকে লেমিনেটিং করা একটি কাগজে লেখা ছিল তার নাম সজল। তিনি মাদরাসা ছাত্রী কারিমা ধর্ষণ মামলার আসামি। ধর্ষণের কারণে তার এই পরিণতি। খবর পেয়ে ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া সার্কেল) মো. মোজাম্মেল হক রেজা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ভান্ডারিয়া ও কাঁঠালিয়া থানা পুলিশ জানায়, গত ১২ জানুয়ারি সকাল ১১টার দিকে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামের বাড়ি থেকে পাশের হেতালিয়া নানা বাড়ি বেড়াতে যাচ্ছিল মেয়েটি। একই গ্রামের সজল ও রাকিব মেয়েটির মুখ চেপে ধরে জোর পূর্বক একটি পানের বরজে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে তারা। এ সময় মেয়েটিকে হুমকি প্রদান করে কাউকে জানালে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ ঘটনায় সজল ও রাকিবকে আসামি করে ১৪ জানুয়ারি ভান্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন মেয়েটির বাবা। মামলার পরপরই রাকিবকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ঘটনার পর থেকেই সজল জোমাদ্দার নিখোঁজ ছিল বলে তার পরিবার জানিয়েছে।