গ্যালাক্সি এস১০+ দিয়ে ধারণকৃত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ফেরার গান’

0
111

বিজ্ঞপ্তি : প্রথমবারের মতো পেশাদার ফিল্ম প্রোডাকশনে স্মার্টফোন ব্যবহার করা হয়েছে বাংলাদেশে। জনপ্রিয় নির্মাতা সাফায়েত মনসুর রানার পরিচালনায় ‘ফেরার গান’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি পুরোটা ধারণ করা হয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০+ দিয়ে। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি গতকাল বুধবার (১২ জুন) অনলাইন ষ্ট্রিমিং সাইট আইফ্লিক্সে মুক্তি দেয়া হয়েছে।
রুবাব খান (জন কবির) দেশের একজন জনপ্রিয় তারকা শিল্পী। সকলেই মুগ্ধ তার গানে। দেশজুড়ে তার লাখো ভক্ত। তবে এতো জনপ্রিয়তা স্বত্বেও তিনি প্রচন্ড রকমের অহংকারী আর সবাইকেই ছোট করে দেখতে অভ্যস্থ। একদিন এক কনসার্ট চলাকালীন সময়ে একজন ভক্ত খুব কসরত করে পৌঁছে যায় একেবারে তার নিকটে। রুবাবের সাথে সেই ভক্ত একটি সেলফি তুলতে চাইলে তিনি সেই ভক্তের সাথে এতোটাই বাজে ব্যবহার করেন যে তার নিরাপত্তায় থাকা প্রহরীরা রীতিমতো ঘাড়ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয় সেই ভক্তকে।
এই ঘটনার পরদিন ভোরে এই বিখ্যাত শিল্পী আবিস্কার করে যে তার মোহনীয় কণ্ঠ কোথায় যেন হারিয়ে গেছে। প্রচন্ড চেষ্টাতেও আগের মতো সুর আসছেনা কণ্ঠে। বহু চেষ্টা চলে কণ্ঠ আগের রূপে ফিরিয়ে আনতে, কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়না। গলায় সুর মিলিয়ে যাবার সাথে সাথে একে একে ক্যারিয়ার ভক্ত এমনকি প্রেয়সীকেও (আজমেরি আশা) হারায় রুবাব। একদিন সে আবিস্কার করে ঠিক কোন ঘটনার পরপর এই দুর্ঘটনা ঘটে তার জীবনে? সেই উত্তর খুঁজে পেতেই সেই ভক্তকে খুঁজে বের করার অভিযানে নামে রুবাব।
নিজের সেই ভক্তকে খুঁজে বের করার এই অভিযানের গল্পই উঠে এসেছে শাফায়েত মনসুর রানা পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র ‘ফেরার গান’-এ।
এই চলচ্চিত্রের পুরোটিই ধারণ করা হয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস স্মার্টফোনে। গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস স্যামসাংয়ের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন। এতে রয়েছে পেশাদার মানের ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড লেন্স, ১২ মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স ও ১৬ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এর ৩ টি রিয়ার ক্যামেরা যা দিয়ে ৪কে ভিডিও ক্যাপচার করা যায় অনায়াসে। শুটিংকালে স্মার্টফোনটির সাথে আলাদা কোন লেন্সও ব্যবহার করা হয়নি। স্যামসাং এস১০ প্লাসে থাকা মূল ক্যামেরাতেই ৪কে রেজ্যুলেশনে পুরো শুটিং সম্পন্ন করার ফলে এই স্মার্টফোনটিতে পেশাগত কাজ করবার সক্ষমতা দারুণ ভাবে প্রমাণিত হয়েছে।
চলচ্চিত্র নির্মাণে স্মার্টফোন ব্যবহার প্রসঙ্গে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান বলেন, “ফেরার গান চলচ্চিত্রটির অংশ হতে পেরে ও পুরো চলচ্চিত্রটিই গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস দিয়ে ধারণ করায় আমাদের পুরো টিমই দারুণভাবে উচ্ছ্বসিত। বিশ্বে চলচ্চিত্র নির্মাণে স্মার্টফোনের ব্যবহারের নতুন কিছু না হলেও বাংলাদেশে প্রোফেশনাল কোন কাজে স্মার্টফোনের ব্যবহার এবারই প্রথম। বিশেষ করে শুটিংয়ের পুরো কাজটিই গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস দিয়ে সম্পন্ন করায় আমরা খুবই আনন্দিত। আমাদের ক্রেতা এবং দর্শকরা চিত্তাকর্ষক এই চলচ্চিত্রটি দারুণভাবে উপভোগ করবেন বলে আমরা আশাবাদী।”