গণসংবর্ধনায় নজর কাড়ার চেষ্টায় মনোনয়নপ্রত্যাশীরা

0
23

অনলাইন ডেস্ক: আয়োজন প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনার। দল বেঁধে আসছেন নেতা-কর্মীরা। আর একে সুযোগ হিসেবে দেখছেন আগামী জাতীয় নির্বাচনের মনোনয়নপ্রত্যাশী নেতারা। তাদের সমর্থকরা নানাভাবে নজর কাড়ার চেষ্টা করছেন।
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এই আয়োজনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ‘শো-ডাউন’ ছিল চোখে পড়ার মতো।
শনিবার বেলা দুইটার দিকে দেশের গানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবর্ধনার আয়োজন শুরু হয়। তবে নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে আসতে থাকেন সকাল থেকেই।
‘শেখ হাসিনা-শেখ হাসিনা’-এটিই নেতা-কর্মীদের প্রধান স্লোগান ছিল। তবে পাশাপাশি উচ্চারিত হয় আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক ‘নৌকা, নৌকা’ স্লোগানও।
নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় পছন্দের প্রার্থীর ছবি সম্বলিত ব্যানার-ফেস্টুন দেখা যায় নেতাকর্মীদের হাতে। কাঙ্ক্ষিত প্রার্থীর প্রতিচ্ছবি খচিত টি-শার্ট শোভা পায় সমর্থকদের গায়ে।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ছবি সংবলিত ফেস্টুনও দেখা যায় নেতাকর্মীদের হাতে।
মানিকগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের সমর্থকরা তার ছবি সংবলিত ফেস্টুন বহন করে নিয়ে আসেন।
খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের সমর্থকদের গায়ে দেখা যায় বিশেষ টি-শার্ট। পোস্টার সাদৃশ্য ছাপা এই টি শার্টে রয়েছে গণসংবর্ধনার বার্তা।
ঢাকা-১৯ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ফারুক হাসান তুহিনের সমর্থকরা টি-শার্ট গায়ে ফেস্টুন হাতে এসেছেন সোহরাওয়ার্দী।
স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের প্রাথমিক যোগ্যতা অর্জন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ, পশ্চিমবঙ্গের কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডি লিট ডিগ্রি অর্জনসহ দেশের নানা সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে দলীয় সভাপতিকে সংবর্ধনা দেয়ার এই আয়োজন করেছে আওয়ামী লীগ।
জাতীয় নির্বাচনের বছরে এই আয়োজনে রাজধানীর পাশাপাশি আশেপাশের বিভিন্ন জেলা থেকেও নেতা-কর্মীরা যোগ দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের পাশাপাশি সহযোগী সংগঠনগুলোও সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে জনসমাগম ব্যাপক করতে।