খালেদা জিয়ার মুক্তি ইস্যুতে চাঙ্গা হওয়ার চেষ্টা বরিশাল বিএনপি’র

0
81

অনলাইন ডেস্ক:দীর্ঘ এক বছর ৪ মাস বছর পর বরিশালে বিভাগীয় পর্যায়ে বড় ধরনের শোডাউন করতে যাচ্ছে বিএনপি। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ইস্যুতে আগামী ১৮ জুলাই বরিশালে বিভাগীয় সমাবেশের মধ্য দিয়ে তৃণমূল নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করার উদ্যোগ নিয়েছে দলটি।
ওইদিন বিকেল ৪টায় নগরীর ঈদগাহ ময়দানে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথি থাকবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গত মঙ্গলবার রাতে ঢাকার গুলশানে দলের চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে বরিশাল বিভাগীয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। সমাবেশ সফল করতে ৬টি উপ-কমিটি গঠনের পাশাপাশি জেলা ও মহানগর নেতাদের স্ব-স্ব ইউনিট এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সমন্বয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয় সভায়।
এর আগে গত বছরের ৭ এপ্রিল একই স্থানে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিভাগীয় সমাবেশ করে বিএনপি। দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর পর খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আবারও দেশব্যাপি বিভাগীয় সমাবেশের অংশ হিসেবে বরিশালেও বিভাগীয় সমাবেশের সিদ্ধান্ত নেয় তারা। গত ৬ জুলাই সন্ধ্যায় বরিশালে মহানগর এবং ৭ জেলা ইউনিট কমিটির নেতারা প্রস্তুতি সভা করে এই সিদ্ধান্ত নেন।
বিভাগীয় সমাবেশ চূড়ান্ত করতে গত মঙ্গলবার ঢাকার গুলশানে দলীয় চেয়ারপার্সন কার্যালয়ে প্রস্তুতি সভা করে দলের বরিশাল বিভাগীয় নেতারা।
বরিশাল মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ারের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য বেগম সেলিমা রহমান।
এছাড়া বিএনপি’র দুই ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও আলতাফ হোসেন চৌধুরী এবং বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিনসহ নির্বাহী কমিটির অন্তর্ভূক্ত নেতারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।
সমাবেশ সুষ্ঠু-সুন্দরভাবে বাস্তবায়ন করতে ওই সভায় ৬টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়। মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারকে আহ্বায়ক করে অর্থ ও সার্বিক ব্যবস্থাপনা কমিটি, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিনকে আহ্বায়ক করে যোগাযোগ, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবায়দুল হক চাঁনকে আহ্বায়ক করে প্রচার, উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদকে আহ্বায়ক করে আপ্যায়ন, মহানগর বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়াকে আহ্বায়ক করে মঞ্চ ও মাঠ, জেলা ও মহানগর বিএনপি’সহ সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের নিয়ে শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি গঠিত হয় সভায়।
এছাড়াও সভায় বরিশাল বিভাগের মহানগর এবং ৭ জেলা ইউনিট কমিটির শীর্ষ নেতাদের স্ব-স্ব জেলা ও ইউনিটের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্বুদ্ধ করে সমাবেশ বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান। এই সমাবেশের মধ্য দিয়ে তৃনমূল চাঙ্গা হবে বলে আশা করছেন তারা।
বিএনপি’র বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন জানান, মাত্র ৭ দিন সময় হাতে নিয়ে বিভাগীয় সমাবেশের সিদ্ধান্ত হয়েছে। ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে তৃণমূল চাঙ্গা করে সমাবেশে ব্যাপক উপস্থিতি করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
বরিশাল মহানগর বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া বলেন, দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে বিভাগীয় সমাবেশ আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। এ লক্ষ্যে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন এবং প্রশাসনকে অবগত করার প্রক্রিয়া চলছে। ঈদগাহ ময়দানের বিকল্প হিসেবে সদর রোডের দলীয় কার্যালয় চত্ত্বরও বিভাগীয় সমাবেশের সম্ভাব্য ভেন্যুর তালিকায় রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।
দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, গণজোয়ার সৃস্টি করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার মধ্য দিয়ে অবরুদ্ধ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্যই বরিশাল সহ দেশের সব বিভাগীয় শহরে বিএনপি বিভাগীয় সমাবেশ করছে বলে তিনি জানান।
বিএনপি’র বিভাগীয় সমাবেশের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে অবগত নয় বলে জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান। তিনি বলেন, যে কোন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা বিধান করে পুলিশ। কোন আবেদন থাকলে সে অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তিনি।