কোহলিকে একাদশে নিতে ঘোর আপত্তি ছিল ধোনির

0
88

অনলাইন ডেস্ক : বিরাট কোহলির ব্যাটিংয়ে মন্ত্রমুগ্ধ গোটা বিশ্ব। কিংবদন্তি ক্রিকেটাররাও কোহলির ব্যাটিংকে কুর্নিশ করছেন প্রতিনিয়ত। একের পর এক রেকর্ড তছনছ করে দিচ্ছেন তিনি। কোহলির দুর্ধর্ষ ফর্মের সৌজন্যে শচীনের হিমালয় সমান রেকর্ড সৌধকেও মলিন দেখাচ্ছে ক্ষণে ক্ষণে।
তবে অনেকেই জানেন না ধোনি একবার একাদশ থেকে বাদ দিতে চেয়েছিলেন বিরাট কোহলিকে। সেই ঘটনা অবশ্য সাম্প্রতিককালের নয়। কোহলি যখন সদ্য জাতীয় দলে পা রেখেছেন, সেই সময়ের কথা। অধিনায়ক কোহলি একবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে যুব দলের এক টুর্নামেন্টে ভাল খেলার জন্য তৎকালীন নির্বাচক প্রধান বেঙ্গসরকারের নজরে পড়েছিলেন বিরাট। কোহলিকে তিনি জাতীয় দলে খেলার জন্য মনস্থিরও করে ফেলেন।
কিন্তু সেই সময় আবার নির্বাচনের জন্য প্রবলভাবে আবির্ভূত হয়েছিলেন বদ্রীনাথ। কিন্তু বেঙ্গসরকার বিরাট কোহলির নাম প্রস্তাব করেছিলেন। ঠিক এই কারণেই নির্বাচক প্রধানের পদ খোয়াতে হয় বেঙ্গসরকারকে। অধিনায়ক ধোনি এবং কোচ গ্যারি কার্স্টেনও কোহলিকে নিতে অসম্মত হয়েছিলেন। বেঙ্গসরকার পরে বলেছিলেন, সেই সময় নির্বাচকরা ঠিক করে নিয়েছিলেন এমার্জিং ট্রফি থেকে অনূর্ধ্ব-২৩ ক্রিকেটারদের জাতীয় দলে নিতে হবে। বিরাট কোহলি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১২৩ রান করেছিলেন।
পরে বেঙ্গসরকার ধোনি-কার্স্টেনকে কোহলিকে নেওয়ার জন্য বলেছিলেন। ধোনি নাকি বলেছিলেন, কোহলিকে খেলা ভালভাবে দেখা হয়নি, তাই এই সিদ্ধান্ত বন্ধ রাখা হোক। পরে বেঙ্গসরকার জোর দিয়েই বলেন, ‘‘আপনারা তার খেলা না দেখতে পারেন, তবে আমি দেখেছি।’’
এরপরেই বিরাট কোহলিকে শ্রীলঙ্কা সিরিজে সুযোগ দেওয়া হয়। প্রথম ম্যাচে কোহলি ১২ রানে আউট হয়ে যান। সেই সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে কোহলি প্রথম অর্ধশতরান করেন। সেই কোহলিই এখন বিশ্ব ক্রিকেটের সবথেকে মূল্যবান ক্রিকেটার। বোর্ডের তরফে সদ্যই কেন্দ্রীয় চুক্তি বের করা হয়েছে। ধোনি নিজের সেরা সময়ে যে পরিমাণ বেতন পেতেন, তার থেকেও বেশি পরিমাণ অর্থ পান কোহলি।