করের আওতায় আসছে ফেসবুক গুগল ইউটিউব

0
46

অনলাইন ডেস্ক : বিশ্বের সর্ববৃহৎ অনুসন্ধান ইঞ্জিন গুগল, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ভিডিও দেখার সাইট ইউটিউবকে করের আওতায় আনা হচ্ছে।
বুধবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত প্রাক-বাজেট আলোচনায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া একথা জানান।
সংবাদপত্র শিল্প মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) নেতারা প্রাক-বাজেট আলোচনায় অংশ নেন।
এসময় সেবাশিল্প হিসেবে সংবাদপত্রকে ভ্যাট ও ট্যাক্সের আওতার বাইরে রাখার প্রস্তাব করেন নোয়াব নেতারা। আর অ্যাটকো নেতারা বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচারে ল্যান্ডিং ফি নির্ধারণ, বিজ্ঞাপনে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) ব্যবস্থা সহজ করার প্রস্তাব করেন।
সভায় নোয়াবের সভাপতি ও প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, ‘বিশ্বে সংবাদপত্র পুরনো শিল্প। অনলাইন মাধ্যমগুলোর কারণে পাঠক হারাচ্ছে সংবাদপত্র। ফলে এ শিল্পের বিজ্ঞাপন থেকেও আয় কমছে। বর্তমানে এটি একটি রুগ্ন শিল্প। আগামী ১০ বছর পর এ শিল্প থাকবে কিনা তা নিয়ে কথা হচ্ছে। ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ ফেসবুক, ইউটিউব থেকে কর আদায় করেছে। এদের কাছ থেকে রাজস্ব আয়ে কমিটি করলে তাতে সহযোগিতা লাগলে আমরা করবো।’
এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘বাজেটে এর প্রতিফলন থাকবে। ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলকে অনেক সুযোগ দেয়া হয়েছে। এখন তাদের করের আওতায় আনা হবে।’
আয়কর আইনে অন্য সব শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য এক ধরনের নীতি ও সংবাদপত্রের জন্য আলাদা নীতিকে উল্লেক করে ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, ‘সাধারণ নিয়মানুযায়ী মূল বেতনের করমুক্ত ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ি ভাড়া পান চাকরিজীবীরা। তবে সংবাদপত্রে এ হার ৬৫ শতাংশ হওয়ায় ২৫ শতাংশের ওপর কর দিতে হয় সংবাদপত্র মালিকদের। এটি তুলে দেওয়া দরকার।’
এ ব্যাপারে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘সংবাদকর্মীদের বাড়ি ভাড়ার ভাতার ওপর কর প্রত্যাহার করা হবে।’
অ্যাটকোর সহ-সভাপতি মোজাম্মেল বাবু বলেন, ‘আমাদের দেশে বিদেশি চ্যানেল প্রচারে কোনও ধরনের ফি দিতে হয় না। অথচ দেশের চ্যানেল অন্য কোনো দেশে প্রচার করলে সংশ্লিষ্ট দেশকে ল্যান্ডিং ফি দিতে হয়। এ নিয়ম পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই চালু রয়েছে। এসব বিদেশি চ্যানেলের বিজ্ঞাপন আয় থেকে রেভিনিউ বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি সংকটে পড়ছে দেশীয় টিভি স্টেশনগুলো। প্রাথমিকভাবে খেলা ও খবরের চ্যানেলগুলো বাদ দিয়ে বাকি সব বিদেশি চ্যানেলের ওপর ল্যান্ডিং চার্জ আরোপ করা দরকার।’
অ্যাটকোর চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান বলেন, ‘ফেসবুক-ইউটিউবের কারণে দেশের গণমাধ্যম সংকটে পড়েছে। এগুলোকে আইনের আওতায় নিয়ে আসলে সবাই উপকৃত হবে। সংবাদপত্র শিল্প বেঁচে থাকবে।’
এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া সভাপতিত্ব করেন সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, অ্যাটকোর সহ-সভাপতি আরিফ হাসান, পরিচালক ফারজানা মুন্নি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।