একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল ৪ আসনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এ্যাড আফজালুল করিম

0
138

বরিশাল প্রতিনিধি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতোই ঘনিয়ে আসছে নির্বাচন ততোই পরিষ্ফোটিত হচ্ছে বরিশাল-৪ আসনের জনপ্রিয় সংসদ নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা । একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে বরিশালে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ ও ইসলামী আন্দোলনের অর্ধশতাধিক নেতা নানা প্রক্রিয়ায় দলীয় প্রার্থী হতে লবিং শুরু করেছেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষার পাশাপাশি এলাকায় জনসংযোগ করে চলেছেন। এতে করে এক ধরনের উত্সাহ-উদ্দীপনা কাজ করছে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, আগামী নির্বাচনে পুরনোদের পাশাপাশি নতুনরাও মনোনয়ন পেতে আগ্রহী । বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ-কাজির হাট ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর তালিকায় রয়েছেন বর্তমান এমপি স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ, দু’বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য বরিশাল জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মইদুল ইসলাম, মেজর (অব.) নাছির উদ্দিন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহম্মেদ, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মুনসুর আহমেদ, বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আফজালুল করিম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক মজিবর রহমান হাওলাদার, মেজর (অব.) মহসিন সিকদার প্রমুখ। এই আসনে বিএনপির মনোনয়নের দৌড়ে রয়েছেন বরিশাল জেলা (উত্তর) বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ, সাবেক অর্থ প্রতিমন্ত্রী শাহ মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি রাজিব আহসান, উত্তর জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি নূরুর রহমান জাহাঙ্গীর ও মোশারফ হোসেন মংগু। এ আসনে ইসলামী আন্দোলনের সৈয়দ এছহাক মোহাম্মদ আবুল খায়ের মনোনয়ন প্রার্থী। জাতীয় পার্টি (এরশাদ) থেকে মনোনয়ন পেতে লবিং করেছেন দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এছহাক ভূইয়া ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহকারী সম্পাদক হারুন আর রশিদ। এই আসনেও আওয়ামী লীগের জয়লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। বরিশাল- ৪ আসনে বর্তমান সাংসদ পংকজ দেবনাথ । বিগত পাঁচ বছরে তার কর্ম কান্ডে বর্তমানে তার জনপ্রিয়তা শুন্যের কোঠায় বলে জানা যায়। অভিযোগ উঠে তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ কোন নেতাদের কোন মূল্যায়ন তিনি করেন নি। স্থানীয় নির্বাচনে আওয়ামী প্রার্থীর বিরুধিতা করে বিএনপি জামায়াতের প্রার্থীকে প্রকাশ্যে জয়লাভ করিয়েছেন। ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গিতে তিনি প্রকাশ্যে আঘাত এনেছেন । বি.এন.পি জামাত এখন তার স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী। এমতাবস্থায় যখন এ্যাড. আফজালুল করিম হিজলা মেহেন্দিগঞ্জ কাজির হাটে নির্বাচনী প্রচারে নামেন তখন আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীরা আশার আলো দেখতে পান। জনগণ বলেন এ্যাড. আফজালুল করিম, সাবেক চীফ হুইপ আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আব্দুল্লার একান্ত আস্থা ভাজন এবং পেশাগত দিক দিয়ে হিজালা, মেহেন্দীগঞ্জ, কাজিরহাট বাসীর প্রচুর সহযোগিতা করে থাকেন বলে এলাকায় তার একটা ব্যাক্তিগত জনপ্রিয়তা লক্ষনীয়। আফজালুল করিমের পিতা মরহুম এ.কে.এম নুরুল করিম (খায়ের মাষ্টার) ১৯৭৩ সালে হিজলায় নৌকা নিয়ে জয়লাভ করে এর পরে আর আওয়ামী লীগ জয় দেখেনি। বর্তমানে হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ, কাজীর হার্টে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এই আফজালুল করিম সদা হাস্যুজ্জল, ধার্মিক, নম্র, ভদ্র, ঠান্ডা মেজাজী । যে কোন মানুষ তার সমস্যার কথা নিয়ে তার কাছে গেলে সে তা মনে যোগ সহকারে শুনেন এবং সুষ্ঠ সমাধান দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্ঠা করেন। এর আগে আফজালুল করিম বরিশাল-৪ আসনে তাকে মনোনয়ন দেন আফজালুল করিম-৪ আসনে ছেড়ে ৩ আসনে মনোনয়ন নেন। কিন্তু সভানেত্রীর সিদ্ধান্তে মহাজোটের স্বার্থে ৩ আসন ও ছেড়ে দিতে হয়। সেই থেকে আওয়ামী লীগের একজন ত্যাগী নেতা হিসেবে দলের কাছে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হন। এই ত্যাগকে সভানেত্রী এবার মূল্যায়ন করবে বলে সকলে আসাবাদী। সর্বপুরী আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় গুঞ্জনে একাদশ সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-৪ আসনে এ্যাড. আফজালুল করিমের অবস্থান আশাবাদী। জনগনও চায় এই রাজনৈতিক পরিবারের নেতাকে মনোনয়ন দিলে বিপুল ভোর্টে নির্বাাচিত করে সংসদে পাঁঠাবে। জনগণ সেই অপেক্ষায়।