আত্মঘাতী হামলায় শিশুকে ব্যবহার করছে আইএস

0
40

অনলাইন ডেস্ক : আফগানিস্তানে বিয়ের অনুষ্ঠানে এক শিশুকে দিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালায় জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। শুক্রবারের ওই হামলায় নিহত হয় অন্ততপক্ষে নয়জন, আহত হয় ১২ জন।
বিবিসি জানায়, দেশটির নানগারহার প্রদেশের পাচিরাগাম জেলায় এই হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস।
সরকারপন্থী এক মিলিশিয়া কমান্ডারকে হত্যা করতে শিশুকে দিয়ে এ আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়।
প্রাদেশিক মুখপাত্র আতাউল্লাহ খুগিয়ানি জানান, সরকারপন্থী মিলিশিয়া কমান্ডার মালিক নুর এবং তার দুই ছেলে নিহত হয়েছেন এ বোমা হামলায়। তাকে হত্যা করতে এক শিশুকে ব্যবহার করেছে জঙ্গিরা।
সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, হামলায় ব্যবহার করা শিশুর বয়স ১০ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে।
তালিবান এবং আইএসের হাত থেকে এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিতে সরকারি নিরাপত্তা বাহিনীকে সহায়তা করে থাকে কিছু মিলিশিয়া বাহিনী। মালিক নুর ছিলেন তেমনই এক বাহিনীর কমান্ডার।
আফগানিস্তানে কুখ্যাত জঙ্গি গোষ্ঠীটি আইএস খোরাসান নামে পরিচিত। দেশটির কয়েকটি প্রদেশে এখনো তাদের তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়, যাদের একটি পাচিরাগাম। বিগত কিছু হামলার জন্য এ গোষ্ঠীকেই দায়ী করা হয়। যার মধ্যে আছে কাবুলের একটি স্কুলে ভয়াবহ আত্মঘাতী হামলাও।
এই প্রথম আত্মঘাতী হামলায় শিশুকে ব্যবহার করা হয়নি। এ বছরের শুরুতে নাইজেরিয়ায় দুইটি মেয়ে এবং একটি ছেলেকে দিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালায় জঙ্গি গোষ্ঠীরা। গত বছর ইন্দোনেশিয়াতে দুই কিশোরীকে ব্যবহার করা হয়েছিল একটি গির্জায় হামলা চালাতে।